1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৯:০০ অপরাহ্ন

আল জয়নালকে রুখবে কে?

নারায়ণগঞ্জ টাইমস :
  • সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২২৫

আবারো আলোচনায় জাতীয়পাটির নেতা আল জয়নাল। এবার  নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়ায় বাক প্রতিবন্ধী এক বৃদ্ধের বসতবাড়ি দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ করেও ভুক্তভোগী পরিবারটি পুলিশের সহায়তা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ রয়েছে। তবে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে দোষ প্রমাণ হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জয়নাল জাতীয় পার্টির নেতা হলেও জেলায় তার পদ পদবী নেই। ২০১৮ এর ৩১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়নাল জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়ে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের মনোনয়ন চেয়ে ব্যর্থ হন।
আল জয়নাল সদর থানায় প্রবেশ করে পুলিশের উপর গুলি বর্ষণ এবং অর্ধশত জমি দখল চেষ্টার মামলার আসামী। তার বিরুদ্ধে জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, ট্রাক মালিক সমিতির জন্য কেনা জমিসহ নগরের বিভিন্ন মানুষের জমি দখল চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে। ওইসব অভিযোগে দায়ের করা মামলায় জয়নাল একাধিকবার জেলও খেটেছেন। কিন্তু তিনি শুধরাননি। আল জয়নাল নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আবদুল কাদিরের বেয়াই। জয়নালের এধরণের কর্মকান্ডের প্রেক্ষিতে সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগ অফিসে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালনের অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোঃ শহীদ বাদল তার এহেন কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে তাকে চোর-বাটপার বলেছেন।

আরও পড়ুন প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে জেলা আ’লীগের দোয়া মাহফিল

ঘটনাস্থলে গিয়ে কথা বলে জানা যায়, নগরীর চাষাঢ়ায় সরকারি মহিলা কলেজের পেছনে রেললাইনের পাশে পৈর্তৃক সূত্রে পাওয়া পৌনে ছয় শতাংশ জমির উপর বসতবাড়ি নির্মাণ করে দীর্ঘ পঞ্চাশ বছর যাবত স্ত্রী ও দুই ছেলে মেয়ে নিয়ে বসবাস করে আসছেন বাক প্রতিবন্ধী ওমর ফারুক। তার বাড়ির তিন পাশে জায়গা কিনে এখন তার বসতবাড়িটি জোরপূর্বক দখলের পাঁয়তারা করছেন জয়নাল আবেদীন। বাক প্রতিবন্ধী এই বৃদ্ধ ইশারা ইংগিতে নানাভাবে বুঝানোর চেষ্টা করেছেন তাদের উপর নির্যাতনের ঘটনা।
ওমর ফারুকের ছোট মেয়ে মাদ্রাসা শিক্ষক ঝুমুর বলেন, ভূমিদস্যু হিসেবে পরিচিত জয়নাল আবেদীনের সন্ত্রাসী বাহিনী শুক্রবার তাদের বাড়িতে হামলা করে টিনের সীমানা প্রাচীর লুট করে নিয়ে যায়। এরপর তার বৃদ্ধা মাকে মারধরসহ হাত পা বেঁধে চাষাঢ়ায় আল জয়নাল ট্রেড সেন্টারে জয়নালের ব্যক্তিগত অফিসে নিয়ে অপমান অপদস্ত করা হয়।
ঝুমুর বলেন, সন্ত্রাসীরা হাত পা বেঁধে আমার মাকে তুলে নিয়ে জয়নালের পায়ের উপর ফেলে বলে “পা ধরে মাফ চা, দয়া ভিক্ষা চা, বাড়ি ভিক্ষা চা। নয়তো বাড়ি ছেড়ে চলে যা। না গেলে তোদের গুষ্টিশুদ্ধ মেরে ফেলব।”
বাড়ি ছেড়ে চলে না গেলে সপরিবারে হত্যার এই হুমকির পর থেকে পরিবার নিয়ে চরম আতংক ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বৃদ্ধ ওমর ফারুক।
তার স্ত্রী নাজমা বেগম বলেন, বেশ কয়েকদিন যাবত আমাদের বাড়ি দখলের জন্য জয়নাল হুমকি দিচ্ছে। সে আমাদের বাড়ি কেনার জন্য কোন প্রস্তাব দেয়নি। জবরদখল করে নিতে চায়। আমি ঘটনা জানিয়ে সদর মডেল থানায় অভিযোগ দিয়েছি কিন্তু পুলিশ আসে না। জয়নালের লোকজন আমাদের বাড়ির টিনের বেড়া খুলে লুটপাট করে নিয়ে গেছে।
নাজমা বেগম বলেন, আমি এসপি স্যারের কাছে গিয়েও জানিয়েছি। তিনি তখন ব্যবস্থা নিলে এইভাবে হামলা ও লুটপাট করতে পারতো না। এখন আমাদের সাহায্য করার মতো আল্লাহ ছাড়া আর কেউ নাই।
পরিবারটির দাবি, গত কয়েকদিন আগে জয়নাল আবেদীন বেশ কয়েকবার হুমকি দিলে থানায় লিখিত অভিযোগ প্রদানসহ পুলিশ সুপারের সঙ্গে দেখা করে সহায়তা চেয়েছিলেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত পুলিশ তাদেরকে কোনো প্রকার সহযোগিতা করছে না। যার কারণে গত রোববার থেকে দফায় দফায় হুমকিসহ তাদের বাড়ির সামনে দেয়াল টেনে অবরুদ্ধ করে দেয়ার প্রক্রিয়া চালাচ্ছে জয়নালের লোকজন।
জয়নাল আবেদীনের বিরুদ্ধে ভূমি দস্যুতা ও অন্যের বাড়ি জবর দখল করার আরো অনেক অভিযোগ রয়েছে। নগরীর স্বর্ণপট্টি এলাকার ব্যবসায়ী নেতার বাড়িও কিছুদিন আগে দখল করতে গিয়েছিলেন এই জয়নাল আবেদীন।
কালিরবাজার স্বর্ণপট্টি এ সি ধর রোড ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রহমত উল্লাহ ফারুক বলেন, জয়নাল নারায়ণগঞ্জের চিহ্নিত ভূমিদস্যু। সে রাতের আঁধারে আমার বাড়ি দখল করতে সন্ত্রাসী বাহিনী পাঠিয়েছিল। এলাকাবাসী এবং পুলিশ যৌথভাবে আমাকে প্রোটেকশন দিয়েছে। জয়নালের সন্ত্রাসী বাহিনী পর পর কয়েকবার আমার বাড়ি দখলের চেষ্টা করেছে।
তিনি আরো বলেন, তাকে ঠেকাতে দাঙ্গা পুলিশও এসেছিল। একজন ভূমিদস্যুর সন্ত্রাসী বাহিনীকে প্রতিরোধ করতে এটা নারায়ণগঞ্জে নজিরবিহীন ঘটনা। পরে আমার মামলায় জয়নাল জেলও খেটেছে। জয়নালের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগে অর্ধ শতাধিক মামলা চলমান রয়েছে বলেও জানান এই ব্যবসায়ী নেতা।
এ ব্যাপারে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, অভিযোগের বিষয়টি জেনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। অভিযুক্ত ব্যক্তি যতো প্রভাবশালী হোক না কেন দোষ প্রমাণ হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
পুলিশ সুপার মো: জায়েদুল আলম বলেন, আমি ওসিকে সদরকে বলে দিয়েছি। পুলিশ ব্যবস্থা নিবে। জবরদখলকারী কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।
যোগাযোগ করা হলে আল জয়নাল আবেদীন বলেন, ওমর ফারুক ও তার পরিবারের দাবি ঠিক নয়। আমি তাদের এক আত্মীয়ের জমি আম মুক্তারনামা বলে দখলে যাই এবং সেখানে ঘর তোলার চেষ্টা করলে তারা বাধা দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে কাজ বন্ধ করে দেয় এবং উভয় পক্ষকে কাগজপত্র নিয়ে থানায় যেতে বলেছে। আমরা মনে হয় ওমর ফারুক থানায় আসবে না।
নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আসাদুজ্জামান বলেন, জমি সংক্রান্ত বিষয়ে পুলিশের তেমন কিছু করার নেই। এটা আদালতে বিষয়। তারপরেও উভয় পক্ষকে তাদের কাগজপত্র নিয়ে থানায় আসতে বলা হয়েছে। কাগজপত্র দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart