1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ১০:০৬ পূর্বাহ্ন

বৃষ্টিতেও থেমে নেই গঞ্জে আলী খাল পরিস্কার কার্যক্রম

স্টাফ রিপোর্টার
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই, ২০২০
  • ২৩২

ঐতিহ্যবাহী গঞ্জে আলী খালের নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১১নং ওয়ার্ডের পয়েন্টের বজ্য পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা করেছেন ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু। এ সময় খালে মেইন পয়েন্ট তল্লা বড় মসজিদের সামনে অতিরিক্ত বর্জ্য ও পলিথিনের স্তুপ দেখে হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে। টানা বৃষ্টিতেও ১২নং ওয়ার্ডের জলাবদ্ধতা নিরসনে এতিহ্যবাহী গঞ্জে আলী খাল পরিস্কার পরিচ্ছন্নতায় চালিয়ে যাচ্ছে নাসিকের টিম। এর মধ্যে কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু’র স্বেচ্ছাসেবী টিম ৪টি নৌকা মাধ্যমে খাল খালে বর্জ্য ও অতিরিক্ত পলিথিন স্তুপ গুলো উত্তোলন করছে।
সরেজমিনে কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু দেখতে পায়, গঞ্জে আলী খালের মেইন পয়েন্ট ১১নং ওয়ার্ডের তল্লা বড় মসজিদে পলিথিনের স্তুপ হয়ে পড়েছে। ফলে সেখানে ৩টি জাল দেয়া হয়েছিল, দ্রুত পানি নিস্কাশন করা জন্য। কিন্তু অতিরিক্ত বজ্য ও পলিথিনের স্তুপের চাপে জালগুলো নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু স্থানীয় কাউন্সিলর জমসের আলী ঝন্টু এলাকা হলেও তিনি কোন ব্যবস্থা বা নাসিককে অবগত করেনি।
নাসিক ১২নং ওয়ার্ডের জলাবদ্ধতা নিরসনে লক্ষ্যে দ্রুত তল্লা বড় মসজিদে ছুটে যান কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, আমরা খানপুরবাসী সংগঠনের সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর কবির পোকন সহ সংগঠনের সদস্যরা। গঞ্জে আলী ১১নং ওয়ার্ডের তল্লা ও মসজিদ এলাকার বর্জ্য ও পলিথিনগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা করার জন্য ৪টি নৌকা চালু করা হয়। কাউন্সিলর শকু ও আমরা খানপুরবাসী নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে খালের বর্জ্যগুলো উত্তোলন শুরু করা হয়। এতে দেখা গেছে, প্রচুর পরিমাণের পলিথিন ও জুট। উপস্থিত ছিলেন না ১১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জমসের আলী ঝন্টু। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, খাল খনন শুরু পর থেকে তাকে এই স্থানে দেখতে পাননি।
এদিকে কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু বলেন, তল্লা বড় মসজিদের সামনে আমরা কত অসচেতন কারণে এই খালের মেইন পয়েন্টে অতিরিক্ত পলিথিনের স্তুপ পেয়েছি। টানা বৃষ্টি কারণে খালের পানি বৃদ্ধি পেয়েছে, অতিরিক্ত বর্জ্য ও পলিথিনের স্তুপের কারণে মেইন পয়েন্ট দিয়ে খালের পানি সরাতে পাচ্ছি না। এই স্তুপগুলো দ্রুত সরিয়ে নিতে ইতিমধ্যে কয়েকটি স্থানে ৪টি নৌকা ব্যবহার শুরু করেছি। এর কারণে আমরা ২/৩ দিনের মধ্যে এই স্তুপগুরো সরিয়ে নিতে পারবো, যদি টানা বৃষ্টি না হয়। এর পাশাপাশি সামনে কোরবানী ঈদ, এতে গঞ্জে আলী খালে গরু কাটা রক্ত ও বর্জ্য আরো বিপর্যয় আশংকা করছি। এতে আমার ১২নং ওয়ার্ডবাসী মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়বে। আজ ১২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হয়ে ১১নং ওয়ার্ডে অবস্থান করে এই খালের বর্জ্যগুলো নিষ্কাশন করছি। আমার ব্যক্তিগত স্বেচ্ছাসেবী টিমের সদস্যরা নৌকা মাধ্যমে জাল ফেলে বর্জ্য সরিয়ে নেয়া কাজ করছে। এই বর্জ্যগুলো নিষ্কাশন না করি তাহলে, ১২নং ওয়ার্ডে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হবে। আমাকে কিছু সময় দিন, দ্রুত খালটি খনন ও বর্জ্য নিষ্কাশনের কাজ সমাপ্ত করা হবে।
আমরা খানপুরবাসী সংগঠনের সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর কবির পোকন বলেন, নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু নেতৃত্বে গঞ্জে আলী খাল যেভাবে পুনঃখনন ও উদ্ধারে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে, তা আসলে প্রশংসিত। আমরা খানপুরবাসী পক্ষ থেকে তাদের দুইজন জানাই আমাদের সালাম। ১১নং ওয়ার্ডের তল্লা বড় মসজিদের সামনে যে ময়লা স্তুপ দেখতে পেলাম, আসলে তা অনেক দুঃখজনক। জনপ্রতিনিধি হয়ে যদি জনগনের পাশে না থাকেন, তাহলে আল্লাহ তার পাশে থাকে না। এক ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আরেক ওয়ার্ডে এসে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা মত কাজ করে যাচ্ছে, ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করার ভাষা খুজে পাচ্ছি না।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart