1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৯:২৮ পূর্বাহ্ন

রাজউকের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে শহরে মানববন্ধন

নারায়ণগঞ্জ টাইমস
  • শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৫১

সম্প্রতি রাজউক ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ শহর ও গাজীপুরের কিছু অঞ্চলের ভবন উচ্চতা ৩ থেকে ৪ তলা এবং শর্তসাপেক্ষে ৬ তলা হবে না মর্মে “ড্যাব” নামে এক পরিপত্র জারি করেছে।

 

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)’র সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে নারায়ণগঞ্জ শহরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটি নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে এ প্রতিবাদী মানববন্ধনের আয়োজন করে।

 

সংগঠনের সভাপতি এড. এবি সিদ্দিকের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের জেষ্ঠ সহ-সভাপতি, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বি, সংগঠনের সহ-সভাপতি সানোয়ার তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল হক দীপু, সদস্য নাসির উদ্দিন মন্টু, আবদুল হাই, গোবিন্দ সাহা, তারেক বিন ইউসুফ বাবু, পপী রাণী সরকার, শফিকুল ইসলাম লিটন, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক শাহীন মাহমুদ, নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরিফউদ্দিন সবুজ, মুক্তিযোদ্ধা আবদুল আজিজ, সামাজিক সংগঠন সমমনার সভাপতি দুলাল সাহা, সাংবাদিক তোফাজ্জল হোসেন ও নারায়ণগঞ্জ ডেভলপার এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি এস.এম.পারভেজ পাভেল।

 

রফিউর রাব্বি বলেন, নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রেক্ষাপটে রাজউকের এ সিদ্ধান্ত অবাস্তব, অবৈজ্ঞানিক ও অবিবেচনাপ্রসূত। দেশের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ শহর এখন সবচেয়ে ঘনবসতীপূর্ণ অঞ্চল। এইটি শ্রমিক ও মধ্যবিত্ত জনগোষ্ঠী অধ্যুসিত। শিল্পাঞ্চল হওয়ায় দেশের প্রায় সকল জেলা থেকে মানুষ জীবিকার প্রয়োজনে এখানে ছুটে আসছে।

 

এখানে ভবন উচ্চতা ছয়তলায় সীমাবদ্ধ করলে এক দিকে বাড়িভাড়া যেমনি বৃদ্ধিপাবে, অন্যদিকে শ্রমিক ও মধ্যবিত্ত জনগোষ্ঠীর পাশাপাশি শিল্পপ্রতিষ্ঠান গুলোর উপরও অর্থনৈতিক চাপ তৈরী হবে। এর ফলে পার্শবর্তী কৃষি অঞ্চলে এর প্রভাব পড়বে, ফসলের জমি কমে আসবে।

 

আমাদের আবাসিক ও বানিজ্যিক ভবন যখন আর দৈর্ঘ-প্রস্থে বৃদ্ধির সুযোগ বন্ধ হয়ে কেবল মাত্র উচ্চতায় বৃদ্ধির সুযোগ রেয়েছে, তখন রাজউকের এসিদ্ধান্ত নগরপরিকল্পনার সাথে সাংঘর্ষিক ও অবৈজ্ঞানিক।

 

তিনি বলেন, পঞ্চশ বছর আগে দেশের জনসংখ্যা ছিল যেখানে সাড়ে সাত কোটি এখন তা আঠারো কোটির অধিক। আগামী পঞ্চাশ বা এক-দুই’শ বছর পরে এর চেহারা কী দাঁড়াবে তা আমরা অনুমান করতে পারছি। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মেব জন্য এক ভয়াবহ বাস্তবতা অপেক্ষা করছে। আমাদের আজকের কোন ভুল সিদ্ধান্ত আগামী প্রজন্মের জন্য ভয়ানক পরিস্থিতি তৈরী করবে।

 

সভাপতির বক্তব্যে এ.বি সিদ্দিক বলেন, স্বাধীনতার পূর্বে একটা সময় ঢাকা ইমপ্রুভমেন্ট ট্রাস্ট নামে “ডিআইটি” কার্যক্রম শুরু করেছিল, যা আজকে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বা রাজউক। তখন নারায়ণগঞ্জে শত শত একর ভূমি অধিগ্রহণ করলেও বাস্তবে শহরে শুধু মাত্র ডিআইটি মার্কেট ছাড়া কিছুই তারা করেনি।

 

বরং অধিগ্রহণকৃত ভূমি বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রীকরে তারা ব্যবসা করেছে। ২০০৭ সালে রাজউর এমনি ভাবে টেন্ডার ডেকে ভূমি বিক্রীর পায়তারা কররে আমরা নাগরিক কমিটি নারায়ণগঞ্জবাসীকে নিয়ে আন্দোলন করে তা বন্ধ করতে বাধ্য করেছি।

 

তিনি বলেন, আমরা মনে করি বর্তমান বাস্তবতায় নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে এখন আর রাজউকের কোন প্রয়োজন নেই। এখানে তাদের এ কাজটি স্থানীয় সরকারের অধিনেই ন্যস্ত করা জরুরী। ভবন নির্মাণ, নকসা অনুমোদন সহ এ সকল কার্যক্রমের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধিনস্ত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনই এখন যথাযথ ও উপযুক্ত।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart