1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

পরিচ্ছন্ন কর্মী সখিনার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন

নারায়ণগঞ্জ টাইমস :
  • সোমবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৮৪

বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিচ্ছন্ন কর্মী সখিনার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। জেলা সিভিলসার্জনের নির্দেশে বন্দর উপজেল্ াস্বাস্থ্য কর্মকর্তা ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেন।

 

সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. আলাউল কবির দিপুকে প্রধান করে ডা. শিলা ও প্রধান অফিস সহকারী জাহাঙ্গীর আলমকে সদস্য করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

 

আগামী ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পরিচ্ছন্ন কর্মী সখিনা স্থানীয় লোকদের দাপটে রোগীদের সাথে খারাপ আচরণসহ হাসপাতালে কাজে অনিহা করে যাচ্ছে।

 

হাসপাতালের অপরিচ্ছন্ন সৌচাগার, ওয়ার্ড অপরিচ্ছন্ন, রোগীর বেড কভার ও বালিশ ব্যবহারের অনুপযোগি। দীর্ঘদিন পরিস্কার পরিচ্ছন্ন না করায় রোগীরা আরো বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

 

এ নিয়ে পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর জেলা সিভিলসার্জন সখিনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন।

 

এ ব্যপারে বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইনচার্জ ডা. মেহেবুবা সাঈদ জানান, আমি কিছু দিন আগে দায়িত্ব নিয়েছি। আমি দায়িত্ব নেয়ার পর দীর্ঘ দিনের অনিয়ম গুলি ধরে ধরে সঠিক করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বর্তমানে যে সকল কাজ করেছি তাতে করে অনেকে আমার প্রতি অখুশি।

 

আমি চাই একটি পরিচ্ছন্ন হাসপাতাল গড়ে তুলতে। আমি সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। সখিনার বিষয়টি জেনেছি আমি তদন্ত কমিটি গঠন করেছি আগামী ৭দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর ব্যবস্থা নেব।

 

পরিচ্ছন্ন কর্মী সখিনা দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত একই হাসপাতালে কর্মরত থেকে দাপট দেখিয়ে যাচ্ছে। এর আগেও এ সখিনার বিরুদ্ধে রোগীদের সাথে খারাপ আচরন করার অভিযোগে স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক, সিভিল সার্জনকে লিখিত ভাবে জানালেও তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

 

এ সখিনা সুইপার হওয়ার পরও সে প্রভাব খাটিয়ে রোগীদের রান্না ও খাবার বিতরণ করত। যা নিয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়েছিল।

 

সে খাবার বিতরন করতে না পেরে এখন সে হাসপাতালের কর্মচারী হয়ে ঠিকাদের কাছ থেকে কাপড় দৌত করণের কাজ নিয়ে হাসপাতালের কাজের সময় নষ্ট করে সে দৌত করণের কাজও করে থাকে।

 

এতে করে হাসপাতালের কাজের বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে বলে জানা গেছে। এদিকে সখিনা দীর্ঘ দিনের অনিয়মকে নিয়মে পরিনত করে রেখেছে।

 

এখন সে অভিযোগ থেকে বাঁচার জন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের কাছে দৌড়ঝাঁপ করছে। অভিযোগ রয়েছে এখনো সে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart