1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৮:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

নারায়ণগঞ্জ টাইমস :
  • বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৭৪

সাবেক রাষ্ট্রপতি, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্ত গ্রহনে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির পক্ষে তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন আহবায়ক তৈমুর আলম খন্দকার ও সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদ।

বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা বলেন, যেই জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণায় দিশেহারা জাতি সাহসী হয়ে যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিলো, যেই জিয়াউর রহমান একজন অন্যতম সেক্টর কমান্ডার হয়ে হাজার হাজার মুক্তিযুদ্ধাকে সংগঠিত করেছিলেন।

অসামান্য বীরত্ব ও দক্ষতায় যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলেন সেই বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান এর “বীর উত্তম” খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়ার অর্থ হলো সমগ্র মুক্তযুদ্ধকে অপমান করা, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসকে অস্বীকার করার প্রচেষ্টা করা।

বন্দুকের নল এবং শঠতায় ভর করে সরকার ক্ষমতায় বসে থাকা এই সরকার তার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্যই এইধরনের ভয়ংকর নিকৃষ্ট সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রয়াস চালিয়েছে।

ক্ষমতার দম্ভে অন্ধ হয়ে তারা বিএনপিকে ধ্বংস করার পায়তারায় একের পর এক হীনপন্থা অবলম্বন করে যাচ্ছে, জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিলের প্রচেষ্টা এই ধরনের একটি জঘন্য প্রতিহিংসাপরায়ন কাজ।

আসলে তারা মনে করেছে, জিয়াউর রহমানের খেতাব কেড়ে নিয়ে তারা জিয়াউর রহমানের অনন্য ইতিহাস মুছে ফেলতে পারবে, বাংলাদেশের কোটি কোটি জনগণের অন্তর থেকে জিয়া ও জিয়া পরিবারকে সরিয়ে দিতে পারবে।

কিন্তু এই ভ্রষ্ট সরকার গত ১৪ বছরে বিএনপির উপর এতো অন্যায় অত্যাচার করে, জিয়া পরিবারকে ধ্বংস করার নানা প্রকারের চেষ্টা করেও কি বুঝতে পারে নাই যে জিয়াউর রহমান ও তার দল বাংলাদেশের মানুষের কাছে পর্বতসম আস্থারস্থল, যা শতচেষ্টা করেও টলানো যাবে না।

আমরা স্পষ্ট ভাষায় সরকারকে বলে দিতে চাই, আপনারা আপনাদের এই জঘন্য হীন প্রচেষ্টা থেকে বিরত থাকুন, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সমরনায়ক জিয়াউর রহমানকে অপমান করার মাধ্যমে মুক্তযুদ্ধ ও সমস্ত মুক্তিযোদ্ধাদেরকে অপমান করবেন না।

এই দেশটাকে বিশ্বের দরবারে আর হেয় করবেন না। মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অবিলম্বে বাতিল করার নির্দেশনা দিন। না হলে, চরম আন্দোলনের মাধ্যমে এই ধরনের হীন চেষ্টার দাতভাঙ্গা জবাব দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) এর সভায় মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বীর সেক্টর কমান্ডার, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের “বীর উত্তম” খেতাব বাতিল করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart