1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৪:২২ পূর্বাহ্ন

আদমজী জামে মসজিদের উন্নয়ন কাজ অব্যাহত

নারায়ণগঞ্জ টাইমস :
  • বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১১০
আদমজী জামে মসজিদের উন্নয়ন কাজ অব্যাহত

সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীতে ঐতিহ্যবাহী জামে মসজিদের সংস্কার ও উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রয়েছে। ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে দুটি ওজুখানা। যেখানে এক সঙ্গে শতাধিক মুসুল্লি ওজু করতে পারবে। নির্মাণ করা হয়েছে ২০ হাজার লিটার পানি ধারণ ক্ষমতার একটি পানির ট্যাংকি। মুসুল্লিদের জন্য বিশুদ্ধ পানি নিশ্চিত করতে গভীর নলকূপ বোরিং করা হয়েছে। মসজিদের ছাদ, পুকুরের ঘাট,বাগান,বৈদ্যুতিক সংযোগ, মসজিদের বারান্দা থেকে পুকুরের ঘাটলা পর্যন্ত সংস্কার করা হয়েছে। এছাড়া মসজিদের সৌন্দয্য বর্ধণে মসজিদের ভেতরে বাইরে টাইলস ও রংয়ের কাজ করা হয়েছে। মসজিদের মুসুল্লিরা যাতে স্পটভাবে ইমামের কথা-বার্তা-বয়ান শুনতে পারে এই জন্য সাউন্ড সিস্টেম করা হয়েছে ভেতরে ও বারান্দায়।

সবশেষ উন্নয়ন কাজের মধ্যে মুসুল্লিদের জন্য আরও ৮টি বাথরুম নির্মাণ করা হচ্ছে। বুধবার (৩ ফেব্রুযারি) সকালে নির্মিতব্য বাথরুমের ছাদ ঢালাই হয়। এসময় ঢালাই কাজের উদ্বোধন করেন সিদ্ধিরগঞ্জ বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ঐক্য পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা সাংবাদিক বিল্লাল হোসেন রবিন।

উপস্থিত ছিলেন বিহারী ক্যাম্পের চেয়ারম্যান লিয়াকত হোসেন, আদমজী উম্মুল ক্বোরা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ও মসজিদ কমিটির সভাপতি হাকীম মো: জয়নুল আবেদীন, হাজী কামাল হোসেন, মসজিদের ইমাম হাফেজ সোলাইমান, ভোলা মেম্বার, হাজী সিরাজ, ব্যবসায়ি ছটু মহাজন,মাহবুব কসাই, মোঃ শাহিদ, পটল মিয়া প্রমুখ। এরআগে দুরুদ ও মোনাজাত পরিচালনা করেন মসজিদের ইমাম হাফেজ সোলাইমান।

আদমজী জামে মসজিদের উন্নয়ন কাজ অব্যাহত

ছাদ ঢালাই উদ্বোধনের পর মসজিদ কমিটির সভাপতি হাকীম জয়নুল আবেদীন সাংবাদিক বিল্লাল হোসেন রবিনকে জানান, মসজিদের উন্নয়ন কাজ ও ইমাম-মুয়াজ্জিন-খাদেমের বেতন ভাতার খরচ মিটাতে মসজিদের নির্দিষ্ট একটি আয়ের পথ বের করা প্রয়োজন। তবে একটি রাস্তা আছে। এটা করতে পারলে মসজিদের একটা নির্দিষ্ট আয় হবে। এসময় সাংবাদিক রবিন বলেন, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর সবার সাথে আলোচনা করে বিষয়টির প্রতি গুরুত্ব দেয়া হবে।

উল্লেখ্য ৫০ এর দশকে নির্মিত হয় আদমজী জামে মসজিদ। আদমজী জুট মিল কর্তৃপক্ষ মসজিদটি নির্মাণ করেন। যে মসজিদের কোন দরজা-জানালা নেই। বাংলাদেশে একটি ব্যতিক্রম মসজিদ হচ্ছে এটি। এই মসজিদ নিয়ে জাতীয় গণমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশিত হয়েছে। এক সঙ্গে মসজিদে প্রায় ২ হাজার মুসুল্লি নামাজ পড়তে পারে। মিল কর্তৃপক্ষ মসজিদের সকল খরচ বহন করতো। কিন্তু ২০০২ সালের ৩০ জুন আদমজী জুট মিল চিরতরে বন্ধ হয়ে গেলে মসজিদের রক্ষাবেক্ষন ও ব্যয় নিয়ে বিশাল সমস্যায় পড়ে যায় মুসুল্লিরা। শুধু তাই নয়, মিল বন্ধের পর মিশ কর্তৃপক্ষ মসজিদের মাইক, ফ্যান ও সাউন্ড বক্স খুলে নিয়ে যায়। এতে চরম বেকাদায় পড়ে মুসুল্লিরা। এক পর্যায়ে আদমজী উম্মুল ক্বোরা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক হাকীম মো: জয়নুল আবেদীন কয়েকজন মুসুল্লিকে নিয়ে মসজিদের হাল ধরেন। এবং বিভিন্ন জনের সহযোগিতায় মসজিদের উন্নয়ন কাজ চালিয়ে আসছেন।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart