1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৪:০৩ অপরাহ্ন

বাংলাদেশের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ অনেক এগিয়ে : মেয়র আইভী

নারায়ণগঞ্জ টাইমস :
  • শনিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২১৪
বাংলাদেশের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ অনেক এগিয়ে : মেয়র আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন মেয়র ও জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, বাংলাদেশ টিকা দেয়ার ক্ষেত্রে অনেক এগিয়ে। শুধু হামের বেলায় না। সাব-কন্টিনেন্টে অন্যান্য যে কার্যক্রম ছিল তার মধ্যে বাংলাদেশ সবসময় এগিয়ে থাকে। আমি বলবো, বাংলাদেশের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ অনেক এগিয়ে।

 

তিনি বলেন, আমি ২০০৩ সাল থেকে পৌরসভার সঙ্গে যুক্ত ছিলাম তারপর সিটি করপোরেশন হলো। সেই পৌরসভার সময় থেকে আমি দেখে আসছি এ বিষয়ে আমাদের স্বাস্থ্য বিভাগ খুব দক্ষ ও পারদর্শী। হামের বেলায় তো ছিলই। পর্যায়ক্রমে ৯০, ৯৫, ৯৯ শতাংশ ছিল, ১০০ শতাংশ সাকসেসও আমরা দেখেছি। তাই আমার দৃঢ় বিশ্বাস, এবারও নারায়ণগঞ্জে ১০০ শতাংশ সাকসেস করবো। নির্ধারিত কেন্দ্র ছাড়াও ভাসমান কেন্দ্র করা হয়েছে৷ যেমন, লঞ্চঘাটে, বাস স্ট্যান্ডে। যাতে কোনো বাচ্চাই বাদ না পড়ে। আমরা সবাই যেন এই বার্তা আমাদের স্বজন, পরিচিতদের মাঝে দেই, তারা যেন ৯ মাস থেকে ১০ বছরের শিশুদের এই কর্মসূচি আওতায় নিয়ে আসেন।’

শনিবার (১২ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় নগরের দেওভোগ এলাকায় অবস্থিত নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৩ এ নারায়ণগঞ্জে ৬ সপ্তাহব্যাপী হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইন উদ্বোধনের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ বলেন, ‘শীতের সময় শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। যার ফলে শিশুরা আমাশয়, ডায়রিয়ার মত রোগে আক্রান্ত হয়। এ সকল রোগ থেকে বাঁচার জন্য বাংলাদেশ সরকার ২০২৩ সালের মধ্যে হামমুক্ত বাংলাদেশ করার ঘোষণা দিয়েছে। এখন ২০২০ সাল, আজ থেকে সপ্তাহব্যাপী আমাদের ক্যাম্পেইন চলবে। এ সময় আমাদের লক্ষ থাকবে ৬ মাস থেকে ১০ বছরের সকল শিশুকে হামের টিকা দেওয়া৷

সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনাদের আত্মীয়-স্বজন, আশেপাশে যারা তাদের তাদের এ বিষয়ে জানাবেন এবং শিশুদের হামের টিকা দেওয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করবেন।’

সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শেখ মোস্তফা আলী জানান, হাম ও রুবেলা রোগের বিস্তার হ্রাস করতে ৯ মাস থেকে অনুর্ধ্ব ১০ বছর বয়সী সকল শিশুকে ১ ডোজ করে এমআর টিকা প্রদান করা হবে। কোনো কারণে ২ বছর বয়সী কোনো শিশু যদি এই টিকা না পেয়ে থাকে অর্থ্যাৎ ড্রপ-আউট ও লেফট-আউট শিশুদেরও খুঁজে বের করে নিয়মিত টিকাদান কর্মসূচির আওতায় আনা হবে। ১০ বছরের কম বয়সী কোনো শিশু এর পূর্বে এমআর টিকা পেয়ে থাকলে কিংবা হাম-রুবেলায় আক্রান্ত হলেও এই ক্যাম্পেইনের তাদের অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। এতে ওভারডোজের কারণে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কোনো ঝুঁকি নেই বলে জানান৷

তিনি বলেন, টিকা দেওয়ার পর কোনো ধরনের সমস্যা যদি কোনো শিশুর দেখা দেয় সেজন্য সিটি কর্পোরেশনের তিন অঞ্চলে (সিদ্ধিরগঞ্জ-নারায়ণগঞ্জ-কদমরসূল) দশটি এইএফআই কর্নার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা, পরামর্শ ও ওষুধ সরবরাহ করা হবে এইসব কর্নার থেকে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ আফসানা আফরোজ বিভা হাসান, জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ, সিটি কর্পোরেশনের ১৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শেখ মোস্তফা আলী, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জেলা সার্ভিলেন্স এন্ড ইমিউনাইজেশন মেডিকেল অফিসার ডা. ফারহানা রহমান প্রমুখ৷

এইএফআই কর্নারগুলো হলো: সিদ্ধিরগঞ্জ অঞ্চলের সাইনবোর্ড এলাকার প্রো-অ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ, মিজমিজি ও জালকুড়ির এফডব্লিউসি, সুমিলপাড়ার সূর্যমুখী ক্লিনিক বামানেহ, নারায়ণগঞ্জ অঞ্চলের চৌধুরীবাড়ির নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-২, দেওভোগের নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-৩, পাইকপাড়ার সূর্যের হাসি নেটওয়ার্ক, কদমরসূল অঞ্চলের দক্ষিন লক্ষনখোলার নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র-১, বন্দরের নগর মাতৃসদন হাসপাতাল, সূর্যমুখী ক্লিনিক বামানেহ।

একযোগে সিটির ২৭টি ওয়ার্ডের ২৪৪টি কেন্দ্রে এ ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে, যা চলবে আগামী ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত৷ এই ক্যাম্পেইনে সিটি এলাকার ২ লাখ ৬৩ হাজার ৮৯২ শিশুকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart