1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

রূপগঞ্জে চাঁদা না দেয়ায় মাদ্রাসা অফিসে হামলা ভাংচুর, আহত ৫

নারায়ণগঞ্জ টাইমস :
  • সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৬৫
রূপগঞ্জে চাঁদা না দেয়ায় মাদ্রাসা অফিসে হামলা ভাংচুর, আহত ৫

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে দাবিকৃত এক লাখ টাকা চাঁদা না দেয়ায় একটি মাদ্রাসা অফিসে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। সন্ত্রাসীদের হামলায় মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ, শিক্ষক ও কর্মচারীসহ ৫জন আহত হয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে।

সোমবার (২৩ নভেম্বর) সকালে উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের বীরহাটাবো আল-জামিয়া আহআস সালাফিয়্যাত মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ দাবি করছে।

মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ আরমান সরকার জানান, দীর্ঘদিন ধরে দাউদপুর ইউনিয়নের চিহ্নিত সন্ত্রাসী আবু তালেব মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও তার কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল। কিছুদিন আগে শিক্ষকদের জিম্মি করে ১০ হাজার টাকা আদায়ও করে নেয় সন্ত্রাসী আবু তালেব ও তার বাহিনীর লোকজন। সর্বশেষ দাবিকৃত এক লাখ টাকা আদায়ের জন্য সোমবার সকালে সন্ত্রাসীরা মাদ্রাসা অফিসে এসে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষের উপর চাপ প্রয়োগ করেন। এসময় তারা টাকা দিতে অস্বীকার করলে সন্ত্রীরা প্রথমে চলে যায়। পরে আবার আবু তালেব ও তার সহযোগীরা দেশীয় অস্ত্রে-শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মাদ্রাসা অফিসে এসে হামলা চালায়।

তিনি জানান, সন্ত্রাসীদের হামলায় মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ, শিক্ষকসহ ৫ জন আহত হন। আহতদের স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হামলাকারীরা ভাংচুর করে ছাত্রদের কাছ থেকে আদায়কৃত বেতনের নগদ টাকাসহ প্রায় পাচঁ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় বলেও অভিযোগ ক্রেন তিনি।

আরো পড়ুন:বন্দরে বড় বোনের বিয়ের টাকা নিয়ে ছোট বোন প্রেমিকের সঙ্গে উধাও

তবে মাদ্রাসায় হামলা ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, এমন ধরণের কোন লিখিত অভিযোগ আমি পাইনি। তবে লোক মারফত খবর পেয়ে মাদ্রাসায় পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও তদন্ত করে চাঁদাবাজির কোন প্রমান পায়নি। তবে কেউ লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ওসি মাহমুদুল হাসান আরো বলেন, তদন্ত করে আমরা জানতে পেরেছি মাদ্রাসার কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে দুইপক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ও বিরোধ চলছে। এই বিরোধ মীমাংসার জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বার মিলে দুইপক্ষকে নিয়ে বৈঠক করছেন বলে জানতে পেরেছি।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart