1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন

দৃষ্টিনন্দন ডিএনডি লেক, থাকবে ব্রিজ, মঞ্চ, ওয়াকওয়ে

নারায়ণগঞ্জ টাইমস :
  • সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০
  • ২২৭
দৃষ্টিনন্দন ডিএনডি লেক, থাকবে ব্রিজ, মঞ্চ, ওয়াকওয়ে

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায় সৌন্দর্য বাড়াতে সেখানে নির্মাণ করা হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন ডিএনডি লেক। রাজধানীর হাতিরঝিলের আদলে এই লেকে থাকবে ব্রিজ, মঞ্চ, ওয়াকওয়ে।

নাসিক সূত্র জানিয়েছে, ডিএনডি লেক নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় শত কোটি টাকা। এ প্রকল্প বাস্তবায়নে দুই ভাগে কাজ চলছে। সিটি কর্পোরেশনের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের গোদনাইল ভাঙ্গারপুল থেকে শিমরাইলের গলাকাটা ব্রিজ পর্যন্ত ডিএনডির মূল খাল পুনঃখনন ও খালের পশ্চিম পাশে ওয়াকওয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। জাইকার অর্থায়ন ও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধানে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স উদয়ন বিল্ডার্স।

২০১৯ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি ও ৩ মে দুই ধাপে ডিএনডি লেকের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। শুরুতে প্রকল্পটি শেষ করতে ১৫ মাস সময় নির্ধারণ করা হয়। চলতি বছরের ডিসেম্বরে কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে সময় বাড়ানো হয়েছে। তিন মাস বন্ধ থাকার পর আবারো শুরু হয়েছে কাজ।

প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, সিটি গভর্নেন্স প্রজেক্টের (সিজিপি) আওতায় সিটি কর্পোরেশনের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের গলাকাটা পুল থেকে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ভাঙ্গারপুল পর্যন্ত সাড়ে ৫কিলোমিটার ডিএনডি খালের সৌন্দর্যবর্ধনে ৬৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকা ও খালের ওপর রাজধানীর হাতিরঝিলের আদলে তিনটি লোডেড ও তিনটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণে ৩৫ কোটি ৮৪ লাখ টাকা ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হলে ডিএনডি লেক হবে সিদ্ধিরগঞ্জের অন্যতম বিনোদন কেন্দ্র।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী আজগর হোসেন জানান, করোনা মহামারির কারণে তিন মাস কাজ বন্ধ ছিল। এখন পর্যন্ত ৫০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। সম্প্রতি নতুনভাবে কাজ শুরু হয়েছে। ছয় মাসের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ হবে।

প্রসঙ্গত : ১৯৬২ সালে জাপান সরকারের আর্থিক সহায়তায় পানি উন্নয়ন বোর্ড ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে ডেমরা হয়ে নারায়নগঞ্জ পর্যন্ত বিশাল বিল এলাকাকে বেঁড়িবাধ দিয়ে সেচের আওতায় এনে ইরি ধান চাষ করার জন্য প্রকল্প তৈরি করেছিল। এই প্রকল্প এলাকাই ডিএনডি (ঢাকা-নারায়নগঞ্জ-ডেমরা) বাঁধ এলাকা হিসেবে পরিচিতি পায়। এই বাঁধের মধ্যে প্রায় সাড়ে বারো ‘শ একর জমিতে সেচের জন্য ডেমরার মৃধাবাড়ি থেকে সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল ভাঙ্গারপুল পর্যন্ত সাড়ে ১৪ কিলোমিটার সেচ খাল করা হয়। এই খালটিতে সুইসগেটের মাধ্যমে বুড়িগঙ্গা ও শীতলক্ষ্যা নদী থেকে পানি প্রবেশ করানো হতো। এবং শুস্ক মৌসুমে  এই খাল থেকে শাখা-প্রশাখার মাধ্যমে পানি প্রবাহিত করে দুই পার্শ্বের ধানক্ষেতে সেচ দেওয়া হতো। কালের আবর্তে ইরিধান চাষ করার জন্য তৈরি প্রকল্প এলাকাটি অপরিকল্পিত আবাসিক এলাকায় পরিনত হয়। অকেজো হয়ে পড়ে খালটি। সেই খালটিতে নির্মাণ করা হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন ডিএনডি লেক।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2018narayanganjtimes
Customized By NewsSmart