1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:৫৯ পূর্বাহ্ন

আড়াইহাজার এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জ টাইমস :
  • মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ১১০
আড়াইহাজার এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) উজ্জ্বল হোসেনের বিরুদ্ধে অসদাচরণ, ঘুষ দাবি ও টাকার বিনিময়ে রায় প্রদানের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী এক মৎস্য খামারের মালিক। মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়নের পাঁচরুখী আলভী মৎস্য খামারের মালিক গাফফার উদ্দিন আহমেদ এই সংবাদ সম্মেলন করেন। ইতমধ্যে তিনি ভূমি ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়সহ সরকারের বিভিন্ন দফতরে এসিল্যান্ডের বিরদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলেও জানান।

ভুক্তভোগী গাফফার উদ্দিন আহমেদ ওরফে আনিসুল হক ভূইয়া কিরন জানান, তিনি আড়াইহাজার উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়নের ঘোষপাড়া পাঁচরুখী গ্রামের মৃত ফৈজদ্দিন ভূইয়ার ছেলে। পাঁচরুখী মৌজায় ২৬টি ভিটি ও পুকুরে আলভী মৎস্য খামার ও পোল্ট্রি নামক প্রতিষ্ঠানে বাণিজ্যিকভাবে মৎস্য চাষ, হাঁস পালন ও সবজি চাষ করেন। সাতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের ইস্যু করা ট্রেড লাইসেন্স মূলে গত ২০১৬ সাল থেকে তিনি এ ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন।

তিনি বলেন, সম্প্রতি আড়াইহাজারে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল (বেজা-২) এর জন্য সরকারিভাবে তার ১৪টি পুকুর ও ভিটি অধিগ্রহণ করেছে। তবে এইসব জমি বাণিজ্যিক হলেও তা নাল দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগ জমির মালিকের। এ নিয়ে আপত্তিও জানান তিনি। পরে শুনানির জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয় আড়াইহাজার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অর্থ্যাৎ এসিল্যান্ড উজ্জ্বল হোসেনকে।

গাফফার উদ্দিনের অভিযোগ, গত ১৫ অক্টোবর এসিল্যান্ড অফিসে ডাকা শুনানিতে তার আইনজীবী জিশান মাহমুদকে নিয়ে যান তিনি। এ সময় এসিল্যান্ড উজ্জ্বল হোসেন তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করেন। তাকে ‘ভূমিদস্যু ও মানব পাচারকারী’ বলেও উল্লেখ করেন। এছাড়া এসিল্যান্ডের অধীনে কর্মরত উমেদার মো. আসাদ উল্লা ওরফে আশাদুল্লা এসিল্যান্ডের নাম করে ঘুষ ও একটি ‘টয়োটা প্রিমিও’ মডেলের গাড়ি দাবি করেন বলেও অভিযোগ তার। তিনি অভিযোগ করে আরও বলেন, এর আগেও একটি জমি সংক্রান্ত মামলায় দুই লাখ টাকার বিনিময়ে প্রতিপক্ষের পক্ষে রায় দিয়েছেন এসিল্যান্ড উজ্জ্বল হোসেন। পক্ষে রায় দেবেন বলে তার কাছ থেকেও ৫০ হাজার টাকা ঘুষ নেওয়া হয়েছিল দাবি গাফফার উদ্দিনের।

তিনি বলেন, ‘একজন প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হয়ে এসিল্যান্ড উজ্জ্বল হোসেন শুনানির দিন আমার সাথে দুর্ব্যবহার করেছেন। আমাকে ভূমিদস্যু ও মানব পাচারকারী বলেছেন। পত্রিকায় আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগ আছে উল্লেখ করে বক্তব্য দিয়েছেন। এইসব কথার কোনো প্রমাণ তিনি না দিতে পারলে আমি তার বিরুদ্ধে মামলা করবো। এর আগেও তিনি দুই লাখ টাকার বিনিময়ে আমার প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছেন। এইসব ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি তার প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করছি। ভূমি অধিগ্রহণে আমার জমি নাল উল্লেখ করার যে আপত্তি আমি জানিয়েছি তা অন্য কোনো সরকারি কর্মকর্তার মাধ্যমে শুনানি হোক, এই দাবি জানাই।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন মফিজ উদ্দিন মমিন, মো. নাসির হায়দার ওরফে আলমাছ মোল্লা ও কাশেম ফকির। তারা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ভূমি অধিগ্রহণ (এলএ) শাখা ও আড়াইহাজারের সহকারী কমিশনারের (ভূমি) কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবি, ঘুষ গ্রহণ ও মিস কেসের মামলার আপিল নিষ্পত্তি হওয়ার পূর্বেই প্রতিপক্ষকে ভূমি অধিগ্রহণের টাকা দিয়ে দেওয়ার অভিযোগ করেন।

অভিযোগের বিষয়ে কথা বলতে আড়াইহাজার উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) উজ্জ্বল হোসেনের মুঠোফোনে (০১৭৬৪৭১৮১৫০) যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে প্রথমবার কলটি কেটে দেন তিনি। এরপর একাধিকবার কল করলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। পরে সন্ধ্যা ৭টা ৩৩ মিনিটে আবারো ফোন দেয়া হয়। কিন্তু তা বন্ধ পাওয়া যায়।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2018narayanganjtimes
Customized By NewsSmart