1. admin@narayanganjtimes.com : ntimes :
  2. ahmedshawon75@gmail.com : ahmed shawon : ahmed shawon
বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৩:৫৮ অপরাহ্ন

একটি মোবাইল ও শাকিল হত্যার রহস্য

রিপোর্টারের নাম :
  • বৃহস্পতিবার, ২০ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৬৫

মাত্র চারশত টাকায় সেকেন্ড হ্যান্ড একটি মোবাইল ফোন কিনেছিল সোহানা। দীর্ঘ ২ বছর সে ফোনটি ব্যবহার করে। কিন্তু সেই ফোনের খোঁজে একদিন সোহানার ঘরের দরজায় কড়া নাড়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) নারায়ণগঞ্জ। পরে সোহানার দেওয়া তথ্যে বেরিয়ে আসে মোবাইলের বিক্রিতা আমিনুল ইসলামের নাম। এরপর আমিনুলের সূত্র ধরে গ্রেপ্তার করা হয় তার সহযোগী আরিফ চৌধুরী ও এই চক্রের সদস্য আরব আলীকে। এক পর্যায়ে আদালতে তাদের দেওয়া জবানবন্দীতে উদ্ঘাটন হয় সোনারগাঁয়ের রিক্সাচালক শাকিল হত্যার রহস্য।
বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) দুপুরে সাংবাদিকদের কাছে এমন তথ্যই তুলে ধরেছেন পিবিআই পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম। এ ঘটনায় শাকিলের কাছ থেকে ছিনতাই হওয়া মোবাইল ফোন ও অটোরিক্সা উদ্ধার করা হয়েছে।
তিনি আরও জানান, ২০১৮ সালের ১২ নভেম্বর সোনারগাঁয়ের গজারিয়া পাড়ার রাস্তার পাশ থেকে শাকিলের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ১৩ নভেম্বর এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় হত্যা মামলা করে নিহতের বড় ভাই মো. সজিব। ২০১৮ সালের ১৩ নভেম্বর থেকে ২০১৯ সালের ৬ জানুয়ারী পর্যন্ত তদন্ত করে সোনারগাঁ থানা পুলিশ। পরে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের নির্দেশে পিবিআইয়ের কাছে ন্যস্ত করা হয় ক্লু’লেস মামলাটি। ১৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হয় পিবিআই’র তদন্ত। গতানুগতিক তদন্তের পাশাপাশি বিজ্ঞান ভিত্তিক ও তথ্য প্রযুক্তির সহযোগীতায় ১ বছর ৭ মাস পর চাঞ্চল্যকর ও নির্মম অটোরিক্সা চালক শাকিল (১৮) হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন করলো তারা।
পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম জানান, হত্যার ৭ থেকে ৮ দিন পূর্বে নিহত শাকিলের সাথে গাউছিয়া স্ট্যান্ডে পরিচয় হয় আসামীদের। আসামী আরিফ চৌধুরী সদ্য বিয়ে করায় অর্থ সংকটে ভূগছিলেন। আর আমিনুল ইসলাম লোভ সামলাতে পারেনি। ঘটনার দিন বিকালে শাকিলকে ফোন দেয় আসামী আরিফ। শাকিল অটোরিক্সা নিয়ে গাউছিয়া আসার পর তাজমহল এলাকায় যাওয়ার কথা বলে রিক্সায় উঠে আরিফ ও আমিনুল। গজারিয়া পাড়ার রাস্তার পাশে যেতেই পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী শাকিলকে অটোরিক্সা থেকে নামিয়ে গলায় থাকা মাফলার দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। মৃত্যু নিশ্চিত হতে শাকিলের দুই চোখে রক্তাক্ত আঘাত করে। পরে শাকিলের পকেটে থাকা টাকা, মোবাইল ও অটোরিক্সা নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে অটোরিক্সা ৯ হাজার টাকা ও মোবাইল ৪‘শ টাকা বিক্রি করা হয়েছিল। এ ঘটনায় আরব আলীকে চোরাই অটোরিক্সা জানার পরেও কিনার অপরাধে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে, ছেলের খুনের পিছনের রহস্য জানার পর কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নিহত শাকিলের মা-বাবা ও বড় ভাই। বারবার সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে হত্যাকান্ডের সুষ্ঠ বিচার চান।

নিউজটি আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বা ব্যবহার করা  সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব www.narayanganjtimes.com কর্তৃক সংরক্ষিত।
Customized By NewsSmart